চারঘাটে লাইভে এসে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীদের কান্ড

Chapai Chapai

Tribune

প্রকাশিত: ১২:১১ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ২৫, ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহী চারঘাট উপজেলার মাদক ব্যবসাকে কেন্দ্র করে ভারতের কাগমারি গুলিকরা নাস এলাকা থেকে সাগরপাড়া থানা এলাকার সাগরপাড়া গ্রামের ধনা মুন্ডল নামের এক জেলে কে জোর পূর্বক ধরে নিয়ে এসেছে চারঘাট চকপাড়া এলাকার শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীরা।

মঙ্গলবার দুপুর ১২ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। সন্ধার দিকে ইউসুবপুর বিজিবি ক্যাম্পের সদস্যরা অভিযান চালিয়ে ভারতের ধনা মন্ডল নামের জেলেকে উদ্ধার করে। এ তথ্য নিশ্চিৎ করে বিজিবি।

জানা গেছে, গত ২৩ তারিখ দুপুর ১২ টার দিকে ভারতে চারঘাট উপজেলার চকমুক্তারপুর এলাকার রহিম উদ্দিনের ছেলে মাদক সম্রাট বাবু ও লাবানের ছেলে মাদক সম্রাট লালনের ফেনসিডিল আনতে যায় চারঘাট সরকার পাড়া এলাকার হিরেনের ছেলে রঞ্জয় ও ইউসুবপুর মুন্ডলপাড়ার জামালের ছেলে আশিক। ভারতের লোকেরা মাদকের টাকা পাওয়াকে কেন্দ্র করে রঞ্জয় ও আশিককে আটকে রাখলে কৌশলে পালিয়ে আসে তারা।

ওই ঘটনার জের ধরে ২৪ তারিখ মঙ্গলবার দুপুর ১২ টার দিকে ভারতের ধনা মন্ডল (৩৮) নামের জেলে কে মাছ ধরার সয়ম নৌকাসহ ভারতের কাগমারি গুলকরা নাস এলাকা থেকে ভারতের সাগরপাড়া থানা এলাকার ধনা মুন্ডলকে জোর পূর্বক তুলে আনে চারঘাট মুক্তারপুর এলাকার বাবু ও লালনের নির্দেশে রঞ্জয়, আশিক, সোহাগ, ডাগু ও নয়ন। এ ঘটনায় চারঘাট মুক্তারপুর ও ইউসুবপুর এলাকায় বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ভারত থেকে তুলে আনা জেলেকে উদ্ধার করেছে ইউসুবপুর বিওপি ক্যম্পের বিজিপি।

আরো জানা গেছে, ভারতের ওই জেলেকে তুলে আনাকে কেন্দ্র করে কথিত গনমাধ্যমে লাইভে এসে মাদক সম্রাট বাবু, নয়ন, রঞ্জয়, আশিক তাদের প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে ইউসুবপুরের পাঞ্জাতন, আরিফ, আগুন, জরিপ, মানিকের নামে মিথ্যা অপপ্রচার করে। এর আগেও মাদক ব্যবসাকে কেন্দ্র করে বাবু ও লালনের নেতৃত্বে কিছু মাদক ব্যবসায়ী পাঞ্জাতন, আরিফ, আগুন, জরিপ, মানিক বাড়িতে হামলা চালায়।

এ বিষয় পাঞ্জাতন জানান, দীর্ঘদিন যাবত মাদক ব্যবসার সাথে জড়িতো নেই আমি। আমি প্রায় ৩ বছর যাবত ইউসুবপুর বাজারে গার্মেন্টস এর ব্যবসার সাথে জড়িতো। এলাকার মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে বিভিন্ন সময় মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে প্রশাসনকে সহায়তা করে আসছি। মাদক ব্যবসার সাথে আমার কোন সম্পৃক্ততা নেই মর্মে পুলিশ সুপার রাজশাহী বরাবর লিখিতো দিয়েছি। মাদকের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়া কে কেন্দ্র করে বর্তমান শীর্ষ মাদক সম্রাট লালন ও বাবুর সাথে শত্রুতা হয়। তারা বিভিন্ন ভাবে আমাকে ফাঁসানোর চেস্টাও করে বর্তমান মাদক সম্রাট বাবু ও লালন।

তিনি আরো বলেন, গত দুই দিন যাবত আমি আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে রয়েছি। প্রকৃত ঘটনা হচ্ছে, মাদক সম্রাট বাবু ও লালনের কাছে টাকা পাওয়ার কারনে ৪-৫ দিন পূর্বে ৫০০ পিচ ফেনসিডিল কাগমারি এলাকা থেকে ভারতের লোক কেড়ে নেয় । এ ঘটনায় শত্রুতা মূল মঙ্গলবার কথিত গনমাধ্যমের ফেসবুক পেজে লাইভে এসে আমিসহ আরিফ, আগুন, জরিপ ও মানিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা ও বানোয়াট তথ্য দিয়ে আমাদের ফাঁসানোর চেস্টা করছে।

পোস্টটি শেয়ার করুন