রাজশাহীতে কৃষক লীগ নেত্রীকে পেটালো এমপি আয়েন উদ্দিন

Chapai Chapai

Tribune

প্রকাশিত: ১২:৫৭ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ২৪, ২০২২

রাজশাহী ব্যুরো: রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনের সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিনের বিরুদ্ধে জমিদখল, নিয়োগ বানিজ্যসহ নানা দুর্নীতি অনিয়মের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করার অভিযোগে উপজেলা কৃষক লীগের মহিলা সম্পাদক শেখ হাবিবাকে পেটানোর অভিযোগ উঠেছে। এর আগেও তাকে মারধরসহ মামলা হামলায় জর্জরিত করেন এমপি আয়েন। এবার আয়েনের সাবেক পিএস একরামুল তাকে পিটিয়ে আহত করেন বলে জানা যায়।

বুধবার (২৩ নভেম্বর) দুপুরে তাকে মোহনপুর উপজেলা চত্বরে এমপি আয়েন উদ্দীনের সাবেক পিএস একরামুল হক বিজয়ের নেতৃত্বে জন সম্মুখে এলোপাতাড়ি পেটানো হয়।

এর প্রতিবাদে ভুক্তভোগী কৃষক লীগ নেত্রী হাবিবা সেখানেই অনশনে বসেন। এরপর তাকে আরেক দফায় পেটাতে পেটাতে মোহনপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে নিয়ে আটকে রাখা হয়। পরে পুলিশ ও স্থানীয়দের সহায়তায় তাকে উদ্ধার করা হয়। এর আগে একই ঘটনার জেরে হাবিবাকে দুই দফা পুলিশ দিয়ে গ্রেপ্তার করিয়ে নির্যাতন করার অভিযোগও রয়েছে এমপি আয়েনের বিরুদ্ধে।

হাবিবা জানান, ‘তিনি দুপুরে উপজেলা চত্বরে এলে বিনা কারণে এমপি আয়েন উদ্দীন ও তার দুলাভাই উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুস সালামের উপস্থিতিতে এনামুল হক বিজয় তাকে পেটাতে থাকেন। পিটিয়ে তাকে রেখে চলে গেলে হাবিবা প্রতিবাদ জানিয়ে সেখানেই অনশনে বসে পড়েন। পরে বিকেলে আবারো বিজয়ের নেতৃত্বে কয়েকজন এসে টেনে-হিঁচড়ে ও পেটাতে পেটাতে উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে নিয়ে আটকে রাখা হয়।’

পরে আহত অবস্থায় হাবিবাকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ বিষয়ে এমপি আয়েন উদ্দীনের সাবেক পিএস ও চাচাতো ভাই এনামুল হক বিজয় বলেন, ‘হাবিবাকে আমি কি মাইরবো,সে আমাকেই কামড় দিয়ে খামছে আহত করেছে।’ একথা বলেই ফোন কেটে দেন তিনি।’

মোহনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিম বাদশা বলেন, ‘আমি সে-সময় আইজিপি স্যারের অনুষ্ঠানে শহরে ছিলাম। এ বিষয়ে অভিযোগের ওপর ভিত্তিকরে আইনানুগ ব্যবস্থা নেব।’
এ বিষয়ে এমপি আয়েনকে একাধিকবার ফোন দেওয়া হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি। তাই তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

পোস্টটি শেয়ার করুন