রাজশাহী মহানগর যুবলীগের জনপ্রিয় মুখ তৌরিদ আল মাসুদ রনি

Chapai Chapai

Tribune

প্রকাশিত: ৫:৩২ অপরাহ্ণ, মার্চ ১, ২০২৩

দীর্ঘদিন থেকেই রাজশাহী মহানগর যুবলীগের নতুন কমিটির দাবিতে সরব তৃণমূলের নেতাকর্মীরা। সম্প্রতি মহানগর যুবলীগের নতুন কমিটির জন্য সভাপতি – সাধারণ সম্পাদক প্রার্থীদের জীবন বৃত্তান্তও জমা নিয়েছে কেন্দ্রীয় যুবলীগ। কেন্দ্রীয় যুবলীগের সূত্র মতে, প্রায় ৩০ জন জীবন বৃত্তান্ত জমা দিয়েছে বলে জানা যায়। মহানগর যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তৌরিদ আল মাসুদকে নিয়ে তৃণমূলের উৎসাহ উদ্দীপনা অন্য রকম। তার বিকল্প আপাতত নেই বললেই চলে। রাজশাহীর ৩৭ টি ওয়ার্ড এবং মহানগর নেতা কর্মীদের কাছে সবচেয়ে প্রিয় একটি নাম তৌরিদ আল মাসুদ রনি।

এসবের অবশ্য কারনও আছে ; তৌরিদ-আল-মাসুদ রনি আওয়ামী পরিবারের সন্তান এবং ছোট থেকেই আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে সক্রিয়। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটনের অত্যন্ত স্নেহভাজন। যার উদ্দেশ্যই লিটন ভাইয়ের হাতকে শক্তিশালী করে রাজশাহী মহানগর যুবলীগকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া।

তৌরিদ আল মাসুদ রনির মানবিক গুণাবলি সমকালীন অন্যান্য নেতৃত্ব থেকে শ্রেষ্ঠতর। তিনি অত্যন্ত দানশীল, পরোপকারী এবং সকল নেতাকর্মীর আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতীক। তিনি সবাইকে ভালোবাসেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী আছে কিন্তু তিনি কাউকে শত্রু মনে করেন না।

তিনি অধিকতর বুদ্ধিমত্তার পরিচয় বহন করেন এবং সাহসী। ভাইয়ের আছে চমৎকার উদ্ভাবনী শক্তি যার মাধ্যমে মৃতপ্রায় যুবলীগকে একটি শক্তিশালী যুবলীগে পরিণত করেছেন। যেকোনো পরিস্থিতিতে অতি দ্রুত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করার ক্ষমতা রাখেন তিনি। তিনি দুঃখ পাওয়া, ভেঙে পড়া এবং হতাশার সাগরে হাবুডুবু খাওয়া কর্মীদের আশার আলো/স্বপ্ন দেখান এবং সেই স্বপ্ন পূরণে বদ্ধপরিকর। তিনি কথা দিয়ে কথা রাখেন। সকল নেতা কর্মীর শ্রদ্ধা, ভালোবাসা এবং বিশ্বাস অর্জনের জন্য তার আছে অসাধারণ এক প্রকৃতি প্রদত্ত শক্তি।

৩৭ টি ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি- সাধারণ সম্পাদকসহ বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা যখন রাজনীতি থেকে বিমুখ হয়ে যাচ্ছিলেন, কেউ কেউ জীবন জীবিকার জন্য বিপদগামী হচ্ছিলেন, অনেকে হাতাশায় নিমজ্জিত হয়ে মাদকের জালে জড়িয়ে যাচ্ছিলো তখন আলোকবর্তিকা হিসেবে প্রকৃত নেতা ও অভিভাবকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হন তৌরিদ আল মাসুদ রনি। তার প্রচেষ্টায় মহানগর যুবলীগের ৫০ এর অধিক নেতাকর্মী চাকরিরত। তার নিজস্ব ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানে কর্মসংস্থান হয়েছে অনেক নেতাকর্মীর।

তার কণ্ঠস্বর, বাচনভঙ্গি, মুখচ্ছবি এবং শারীরিক গঠনে এমন এক মহাজাগতিক সৌন্দর্য সন্নিবেশিত থাকে যে, সকল নেতাকর্মী মুগ্ধ হয়ে তার দিকে এগিয়ে যেতে থাকে।

তিনি যেমন নিরহংকারী তেমনি তিনি মিথ্যাও বলেন না। তিনি কথায় না কাজে বিশ্বাসী। সত্য, সুন্দর এবং সাধারণত্ব দিয়ে তিনি নিজের জন্য স্বতন্ত্র একটি স্টাইল তৈরী করে থাকেন, যা তার সকল নেতাকর্মীকে কাছে টানে।

সবকিছু বিবেচনায় রাজশাহী মহানগর যুবলীগের নেতৃত্বে তৌরিদ আল মাসুদের বিকল্প নেই। তৃণমূল নেতাকর্মীরা তাই মনে করেন। স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে যোগ্য যুবসমাজের তৈরির ক্ষেত্রে তৌরিদ আল মাসুদ রনি সবচেয়ে যোগ্য।

—ফেসবুক টাইমলাইন থেকে।

পোস্টটি শেয়ার করুন