২২ আগষ্ট, ২০১৩ ; রক্তাক্ত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

Chapai Chapai

Tribune

প্রকাশিত: ১১:৪৫ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২২, ২০২০

খালেদ হোসেন নয়নঃ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের তৎকালিন সাধারণ সম্পাদক তৌহিদ আল হোসেন তুহিনের ওপর রাতের(১০ টা) আধাঁরে সশস্ত্র শিবির ক্যাডাররা চোরাগোপ্তা নৃশংস হামলা চালায়।

সৈয়দ আমীর আলী হল ছাত্রলীগ কতৃক আয়োজিত জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভা শেষে আনুমানিক রাত ১০ টার দিকে রাবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক তুহিন ৪/৫ জন নেতাকর্মী সহ হেটে মাদারবক্স হলের দিকে যাচ্ছিল।পথিমধ্যে আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা শিবির ক্যাডাররা অতর্কিত কাপুরুষোচিত হামলা চালায় তুহিনের ওপর,গুলিবর্ষণ ও ককটেল চার্জ করতে থাকে আর এর ভিতরেই তুহিনের ৩ হাত পায়ের রগ কেটে ফেলে,কেটে ফেলে হাতের ১ টি আঙ্গুল, মাথায় চাইনিজ কুরাল দিয়ে উপর্যুপরি আঘাত করে পালিয়ে যায়।তুহিনের সাথে থাকা ছাত্রলীগ নেতা শাওন গুলিবিদ্ধ হয়।

সেদিন গভীর রাত অবধি ক্যাম্পাসে ও হলে হলে চলতে থাকে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের বিক্ষোভ।

জামাত শিবির ক্যাডারদের হামলায় গুরুতর জখম তৎকালীন সাধারণ সম্পাদক তুহিন


পরদিন সন্ধ্যায় তুহিনের ওপর বর্বরোচিত হামলার প্রতিবাদে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে।
সারাদেশ ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের বিক্ষোভে ফেটে পড়ে।

তুহিন ও শাওন কে মরণাপন্ন অবস্থায় প্রথমে রাজশাহী মেডিকেল, তারপর ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে নেয়া হয়।
নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে আমাদের মাঝে ফিরে আসে মৃত্যুঞ্জয়ী ছাত্রনেতা তুহিন। শাওনের হাতে গুলি লাগাতে সে সময়সাপেক্ষে সুস্থ হয়ে ওঠে।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা সার্বক্ষণিক ছাত্রলীগ নেতা তুহিনের চিকিৎসার খোঁজখবর রেখেছিলেন।

ছাত্রলীগের সোনালী অর্জন, মৃত্যুঞ্জয়ী ছাত্রনেতা তৌহিদ আল হোসেন তুহিন মূল্যায়িত হবে, ভবিষ্যতে জনপ্রিয় জননেতা হবে, এই প্রত্যাশা আমাদের।

লেখকঃ
খালেদ হোসেন নয়ন
সহ-সভাপতি, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

সাবেক সহ-সভাপতি,রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ।

পোস্টটি শেয়ার করুন